১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ |
  • প্রচ্ছদ
  • জাতীয় >> টপ নিউজ
  • আওয়ামী লীগে এত ভিড় কেন?
  • আওয়ামী লীগে এত ভিড় কেন?

    দৈনিক আমার ফেনী

    বিশ্বজিৎ দত্ত
    আওয়ামী লীগে এত ভিড় কেন? প্রশ্নটা সবার মনে। গণমাধ্যমে কয়েকদিনের আলোচনার বিষয় ছিল, নৌকার মাঝি হতে এত ভিড় কেন? বা তারকারা কেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী হচ্ছে? আগে থেকে বলা হচ্ছিল, এইবার আওয়ামী লীগের প্রার্থী যারা হবে বা যাদের প্রার্থী করা হবে তাদের মধ্যে চমক থাকবে। সেইসব চমক মাথায় নিয়েই ৩০০ আসনে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে আওয়ামী লীগ। যদিও এরমধ্যে ২ আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত হয়নি।
    এরপরও এইসব প্রার্থীদের তালিকায় তারুণ্যের জোয়ারের বিষয়টিও পরিলক্ষিত হচ্ছে। ১৯৭১ থেকে শুরু করে যেকোনো সংকটে তরুণরা যেভাবে দেশের কাছে ঝাঁপিয়ে পড়েছে তাতে করে তরুণদের ওপরই দেশ রক্ষার গুরুদায়িত্ব থাকে। এইবার তুলনামূলক বিতর্কিত এবং বয়স্ক এমপি-মন্ত্রীদের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে।

    দেশের সবচেয়ে পুরোনো রাজনৈতিক দল হিসেবে আওয়ামী লীগের সুনামের সাথে সাথে বদনামও আছে তবে সেইসব বদনাম হটিয়ে এইবার আওয়ামী লীগ নতুন করে সেজেছে। অভিজ্ঞ নেতাকর্মী ও তরুণদের ওপর ভরসা করেছে বেশি।

    দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সারা দেশের ৩০০টি সংসদীয় আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী থেকে মনোনয়ন ফরম কিনেছে ৩ হাজার ৩৬২ জন। এর আগে ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করতে ৪ হাজার ২৩ জন দলীয় মনোনয়ন ফরম কিনেছিল। সেই হিসাবে এবার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম আগেরবারের চেয়ে ৬৬১টি কম বিক্রি হয়েছে।

    প্রশ্ন হলো, এইবার আওয়ামী লীগে এত ভিড় কেন? ওয়াশিংটনভিত্তিক অলাভজনক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইনস্টিটিউট (আইআরআই) বাংলাদেশের রাজনীতি, অর্থনীতি, সরকারসহ বিভিন্ন বিষয়ে এক জনমত জরিপ চালিয়েছে। এই জরিপের তথ্য বিশ্লেষণ করে ৮ আগস্ট ২০২৩, তাদের ওয়েবসাইটে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক থিঙ্ক ট্যাংক কাউন্সিল অন ফরেন রিলেশনস (সিএফআর)। শতাব্দী প্রাচীন এই প্রতিষ্ঠান রাজনীতি, নির্বাচন, বিদেশনীতি, আন্তর্জাতিক রাজনীতিসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কাজ করে।

    তাদের জরিপ বলছে, শেখ হাসিনার কাজে ৭০ ভাগ মানুষের সমর্থন রয়েছে। একটা দেশের ৭০ শতাংশ লোক যখন একজন রাষ্ট্রনায়কের ওপর ভরসা করে তখন বলা চলে দেশের বৃহৎ জনগোষ্ঠী আসলে শেখ হাসিনা বা শেখ হাসিনার সরকারের ওপর ভরসা করছে এবং শেখ হাসিনাতেই আস্থা রাখছে।

    প্রধানমন্ত্রী ও তার সরকারের জনপ্রিয়তা বাড়ার কারণ হিসেবে দেখা হচ্ছে, প্রথমত কোভিড-১৯ মোকাবিলায় সাফল্য। এরপর রয়েছে অবকাঠামোগত উন্নয়ন এবং সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি বিস্তৃতকরণ।

    দেশের অনেকেই বা একটা অংশ বিভিন্ন জরিপ নিয়ে সমালোচনা করলেও আইআরআই-এর এই জরিপ নিয়ে কারও দ্বিমত নেই। যেহেতু দ্বিমত নেই তাই সবাই বিশ্বাস করছে শেখ হাসিনাই দেশ পরিবর্তনের মুল নিয়ামক।

    দুটি বিষয় এখানে বিশেষভাবে উল্লেখ করা প্রয়োজন। প্রথমত করোনার সময় মন্ত্রী থেকে শুরু করে স্বাস্থ্য সচিব সবাই ছিল বিভ্রান্ত সেই সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একা হাতে গোটা দেশের মানুষকে আশা জাগিয়েছে। করোনা ভ্যাকসিন এনে তা সবার মাঝে বিনামূল্যে বণ্টন করেছে।

    দ্বিতীয় বিষয় হলো, অবকাঠামোগত উন্নয়ন। জরিপে, মানুষ বিভিন্ন সেক্টরে শেখ হাসিনার সরকারের সাফল্যের উচ্চ প্রশংসা করেছে। সড়ক, মহাসড়ক এবং সেতু নির্মাণে সরকারের সাফল্যের কথা বলেছে ৮৭ শতাংশ মানুষ।

    আওয়ামী লীগের যে নিন্দুক তারাও স্বীকার করবে দেশে আসলেই উন্নয়ন হয়েছে। অন্তত সড়ক ও যোগাযোগ খাতে অভাবনীয় উন্নয়ন। এই উন্নয়নের রকেট গতিকে ছুটিয়ে নিয়ে যাচ্ছে শেখ হাসিনা একা হাতে। এইসব বিষয় বিবেচনা করলে অঙ্কের সমাধান মিলবে। যে প্রশ্ন দিয়ে লেখা শুরু করেছিলাম, আওয়ামী লীগে এত ভিড় কেন? ভিড় এই কারণেই যে, আওয়ামী লীগ বা শেখ হাসিনা জনগণের আস্থা তৈরি করতে পেরেছে। শুধু কাজ দিয়ে তা সম্ভব হয়েছে। মুখের কথায় নয়। এই আস্থা পরীক্ষিত। জরিপের ফলাফলও তাই বলে।

    তবে আওয়ামী লীগের সামনে চ্যালেঞ্জ অনেক। ধর্মান্ধতা দূরীকরণ, দুর্নীতি নির্মূল, পণ্যের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখলে এই অগ্রগতি আরও বাড়বে সেই বিষয়ে কোনো সন্দেহ নেই। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ যাদের প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করল, আশা করছি তারা নির্ধারিত আসনে এমপি হয়ে এইসব সংকট দূর করবে।

    লেখক: গণমাধ্যমকর্মী।

    আরও পড়ুন

    মেধার অন্ধ অহংকারে অন্যকে অসম্মান করার অদম্য স্পৃহা থেকে বের হয়ে আসুন
    বিভ্রান্তিকর ও স্বার্থপরতার আন্দোলন!
    প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য বিকৃত করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপচেষ্টা
    ফেনীতে মাদকদ্রব্য অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস পালিত
    মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে?
    মেধা-কোটা বিতর্ক
    গ্রেফতার হলেন ব্যারিস্টার সুমনকে হত্যার হুমকিদাতা
    কোটা নিয়ে হাইকোর্টের রায়ে আপিল বিভাগের স্থিতাবস্থা জারি